আল্লাহর কাছে যাওয়া পরিশ্রমের কাজ

আল্লাহর কাছাকাছি হওয়াটা একবারেই করে ফেলার কাজ না। এটা একটা প্রক্রিয়া। এটা এমন কিছু যার জন্য প্রত্যহ কাজ করে যেতে হবে। এখন, আপনি ইচ্ছে করলে দৈনিক ভিত্তিতে এই সম্পর্কের উন্নতি ঘটাতে পারেন অথবা ইচ্ছে করলে দৈনিক ভিত্তিতে এ সম্পর্কের ক্ষতি সাধন করতে পারেন।

একটি ভালো দিন…আপনি সকালে উঠে মসজিদে গেলেন। কিছু কুরআন তিলাওয়াত করলেন। অন্তর বিগলিত করে অকৃত্রিম কিছু দোয়া করলেন। কিছু খারাপ কাজ আপনার অভ্যাসের অংশ হয়ে গিয়েছে কিন্তু আজ সেগুলো থেকেও দূরে থাকলেন। মানুষকে কষ্ট দিয়ে কোনো কথা বললেন না। কোনোভাবে কারো কোনো ক্ষতি করলেন না। এভাবে যোহর পর্যন্ত পৌঁছে গেলেন। এখন, অনুভব করছেন আপনি আগের চেয়ে আল্লাহর অনেক কাছাকাছি আছেন। অন্তরে এক ধরণের স্বর্গীয় প্রশান্তি অনুভব করছেন। নিজের উদ্বেগ উৎকণ্ঠাগুলো কোথায় যেন হারিয়ে গেছে।

এরপর… কেমন করে যেন মনোবল কমে গেল। ভাবলেন, আমার হাতে কিছুটা ফ্রি সময় আছে। মুভি বা কিছু একটা দেখে একটু বিনোদন করি এবং শুরু করলেন। এখন, আপনি আবার পিছিয়ে যাচ্ছেন। উন্নতি অর্জন করছিলেন কিন্তু এখন আবার নিচের দিকে নামা শুরু করলেন। এমনটা সবসময় ঘটে আসছে। কিছুটা অগ্রগতি অর্জন করেন এরপর আবার পিছিয়ে পড়েন। কিছুটা অগ্রগতি অর্জন করেন এরপর আবার পিছিয়ে পড়েন। আমাদের অধিকাংশের ক্ষেত্রে দেখা যায়, আমরা এমনসব কাজে যুক্ত হয়ে পড়ি যা আমাদেরকে ধীরে ধীরে আল্লাহর কাছ থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। আর কদাচিৎ আমরা কিছু ভালো কাজ করি যা আমাদের আল্লাহর কাছাকাছি নিয়ে আসে। এখন, আপনি যদি অবিরত নীচের দিকে নামতে থাকেন, আর কালেভদ্রে একটুখানি উপরে উঠেন- আপনি কি তখন নিজের উন্নতি অনুভব করেন? না।

তখন উন্নতি অনুভূত হয় না। ফলে, আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করার মধুরতা কখনো ফিল করেন না, তাই আপনি শুধু নিচের দিকেই নামতে থাকেন। এটি সর্পিল অবনতি। ব্যাপারটা ঠিক এমন, আপনি নিয়মিত জাঙ্ক ফুড আহার করেন, শরীরের স্থানে স্থানে মেদ জমে গেছে। বছরে দুই একটা বুক ডন বা পুশ আপ তো আর কোনো পরিবর্তন আনবে না। আল্লাহর নিকটবর্তী হওয়ার ব্যাপারটাও এরকম। এটা আপনার লক্ষ্য। আপনি ইঞ্চি ইঞ্চি করে এগিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিটি নতুন দিন একটি নতুন সুযোগ পূর্বের অবস্থানের চেয়ে আরেকটু এগিয়ে যাওয়ার। নিজের অগ্রগতির দিকে লক্ষ্য রাখুন। অগ্রগতি অর্জন করা মানুষদের সম্পর্কে আল্লাহ বলেন- اُولٰٓئِکَ الۡمُقَرَّبُوۡنَ – তারাই (আল্লাহর) নৈকট্যপ্রাপ্ত। فِیۡ جَنّٰتِ النَّعِیۡمِ – (তারা থাকবে) নেয়ামতে পরিপূর্ণ জান্নাতে।

[সূরা ওয়াকিয়া, আয়াত ১১-১২] – নোমান আলী খানের আলোচনা অবলম্বনে- 02. Al-Waqi’ah (Ayah 10-19) – A Concise Commentary- bayyinah tv

(Visited 425 times, 1 visits today)

মতামত

comments