নিজেকে নিয়ে হতাশ থেকো না

আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা সূরা তাগাবুনের তৃতীয় আয়াতে বলেছেনঃ خَلَقَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ بِالْحَقِّ وَصَوَّرَكُمْ فَأَحْسَنَ صُوَرَكُمْ ۖ وَإِلَيْهِ الْمَصِيرُ
তিনি নভোমন্ডল ও ভূমন্ডলকে যথাযথভাবে সৃষ্টি করেছেন এবং তোমাদেরকে আকৃতি দান করেছেন, অতঃপর সুন্দর করেছেন তোমাদের আকৃতি। তাঁরই কাছে প্রত্যাবর্তন।

তিনি বলেছেনঃ وَصَوَّرَكُمْ فَأَحْسَنَ صُوَرَكُمْ তোমাদেরকে আকৃতি দান করেছেন, অতঃপর সুন্দর করেছেন তোমাদের আকৃতি।

কি অসাধারন পরিবর্তন, উনি আপনার আকৃতি দিয়েছেন, আল্লাহ বলেছেন যে উনি বাকী সবকিছুকে সৃষ্টি করেছেন, উনি তার সাথে যোগ করতে পারতেন যে তিনি আপনাকেও সৃষ্টি করেছেন। উনি আগেই এটা বলে ফেলেছেন, উনি এবার সেটা পরিবর্তন করেছেন, وَصَوَّرَكُمْ, তিনি আপনাকে আকৃতি দান করেছেন, আরবীতে এই শব্দের অর্থ হলঃ কোন কিছুকে নিঁখুত, সুন্দর আকৃতিতে গড়া। আল্লাহ নিজে বলছেন, আমি তোমাকে খুব সুন্দর আকৃতিতে তৈরি করেছি। উনি নিজে সেটা আমাদেরকে বলছেন। উনি যেভাবে আমাদেরকে তৈরি করছেন তাতে উনি গর্ববোধ করছেন। জানেন, যারা অকৃতজ্ঞ তারা কি বলবে? বলবে, কেন আমি এত মোটা? কেন আমি এত চিকন? কেন আমি এত বেঁটে? কেন আমার মুখে এত দাগ। কেন আমার এরকম কেন ওইরকম। কেন আমি আমার ভাইয়ের মত স্মার্ট না? কেন আমি গরীব আর সে ধনী। কেন তার এটা আছে আর আমার নেই?

আর জানেন, আজকালকার আধুনিক সমাজে কি হয়? এবং শুধু আমেরিকাতেই নয় সারা বিশ্বে? মানুষের বয়স বাড়তে থাকে, চুল পাকা শুরু হয়, চামড়ায় ভাঁজ পড়তে শুরু করে, পুরো মাল্টিমিলিয়ন ডলারের ইন্ডাস্ট্রি গড়ে উঠেছে যাতে বলা হয় যে মানুষ সেইরকম দেখাবে যেমন সে তার বিশ বছর বয়সে দেখাতো, আসলে তাকে দেখায় একটা কিম্ভূত প্রাণীর মত। তারা আপনার চুল গজিয়ে দিবে, আপনার চামড়া টেনে ভাঁজ দূর করার চেষ্টা করবে, আপনার ভূড়িটাকে ভেতরে ঢুকিয়ে দেবার চেষ্টা করবে, এরকম আরো অনেক কিছু করবে। যেন আপনি ভাব ধরতে পারেন যে এখনো আপনার বয়স ২৫। আল্লাহ বলছেন, তুমি যেমন সেটাই মেনে নাও, আমি মনে করি যে তুমি সুন্দর, কেন তোমার মনে হচ্ছে যে তুমি অসুন্দর? কেন তুমি নিজেকে নিয়ে এত অখুশী?’ وَصَوَّرَكُمْ فَأَحْسَنَ صُوَرَكُمْ তিনি তোমাদেরকে আকৃতি দান করেছেন, অতঃপর সুন্দর করেছেন তোমাদের আকৃতি। আর আকৃতি বুঝাতে শুধু বাহ্যিক বোঝানো হচ্ছে না, এমনকি আমাদের ব্যক্তিত্ব, সক্ষমতা, আল্লাহ প্রত্যেককেই নির্দিষ্ট কিছু গুণ দিয়েছেন, প্রতিভা দিয়েছে, উনিই এগুলো আমাদেরকে দিয়েছেন। যদি আল্লাহ আমাদেরকে যা দিয়েছেন তা আমরা কদর করতে না পারি এর অর্থ হল আমরা আল্লাহকেই কদর করছি না। কারণ এগুলো উনিই দিয়েছেন।

যেমন ধরুন কেউ আপনাকে একটি উপহার দিয়েছে, আর আপনি তার কদর করলেন না, এটা যে উপহার দিয়েছে তার প্রতি একটা অসম্মান। আমাদের মাঝে যা আছে তার সবই আল্লাহর তরফ থেকে একটা উপহার। وَصَوَّرَكُمْ فَأَحْسَنَ صُوَرَكُمْ (এর এটাই অর্থ)। আর আপনি যদি সেটা ধরতেই না পারেন, ব্যাপার না , وَإِلَيْهِ الْمَصِيرُ এসব কিছুই আল্লাহর কাছে ফিরে যাবে। আপনি এই উপহার কাজে লাগাতে পারেন কিংবা না পারেন, এই উপহার তার আসল স্রষ্টার কাছে ফেরত যাবেই যাবে এক সময়।

(Visited 44 times, 1 visits today)

মতামত

comments