“আল্লাহ পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।”

“আল্লাহ পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।”

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

কুর’আনের ভাষাগত সৌন্দর্য: “আল্লাহ কোন পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।”

————————————-

সূরা আল-আহযাব (সূরা নং ৩৩, মদীনায় অবতীর্ণ), আয়াত ৪:

مَّا جَعَلَ اللَّهُ لِرَجُلٍ مِّن قَلْبَيْنِ فِي جَوْفِهِ وَمَا جَعَلَ أَزْوَاجَكُمُ اللَّائِي

বাংলা অনুবাদে দেয়া আছে: আল্লাহ কোন মানুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।

সঠিক অনুবাদ হবে: আল্লাহ কোন পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।

কারন لِرَجُلٍ অর্থ পুরুষ, মানুষ নয় (মানুষ হলে স্ত্রী পুরুষ উভয়কে বুঝাত)।

ইংরেজী অনুবাদ সমূহ:

By Abdul Daryabadi: Allah hath not placed unto any man two hearts in his inside.

By Dr. Mohsin: Allâh has not made for any man two hearts inside his body.

By Mufti Taqi Usmani: Allah has not made for any man two hearts in his chest cavity.

By Pickthal: Allah hath not assigned unto any man two hearts within his body.

By Yusuf Ali: Allah has not made for any man two hearts in his (one) body.

এবার আসি মুল বিষয়ে। কুর’আনের এই আয়াতের ভাষার স্বচ্ছতা, সূক্ষ্মতা ও সৌন্দর্য বিষয়ে।

আয়াতটি ছিল আল্লাহ কোন পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।

দেখুন, আল্লাহ যিনি একমাত্র উপাসনা ও আনুগত্য পাবার যোগ্য তিনি সুন্দরভাবে বলেন যে, তিনি কোন পুরুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।

এখানে কাকে বাদ দেয়া হয়েছে? নারীকে, তাই না? তিনি যদি বলতেন তিনি কোন মানুষের মধ্যে দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি, তবে সেটা স্ত্রী-পুরুষ উভয়কে বুঝাত। মানে সবার ক্ষেত্রে কথাটা বলা হতো।

কিন্তু আপনি যদি لِرَجُلٍ অর্থ দেখেন, দেখবেন সেটা পুরুষকে বোঝায়, মানে নারী অর্ন্তভুক্ত নয়। গুগুল ট্রান্সলেটে ইংরেজি থেকে এরাবিক দেখতে পারেন- رجل অর্থ man, male, leg, boy, pin, bloke বা যেকোন ভালো আরবী জানা লোক বা ইমামের কাছ থেকেও জেনে নিতে পারেন।

এবং সেই আয়াতে আরো লক্ষ্য করলে দেখবেন যে, এই আয়াতের বাকী অংশে নারীদেরকে নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে কিন্তু প্রথম অংশটি বিশেষভাবে পুরুষকে নিয়ে বলা হয়েছে।

আরো মজার বিষয় লক্ষ্য করবেন যে, যখনি কোন আয়াতে হৃৎপিণ্ডের কথা বলা হয়েছে সেখানে সাধারণত বলা হয়ে থাকে “আল কুলুবিল্লাতি ফিস সুদুর”, হৃৎপিণ্ড যা বুকের মধ্যে বিদ্যমান বা বুকের ভিতরে। কিন্তু এই নির্দিষ্ট আয়াতে এসে হৃৎপিণ্ড বুকের মাঝে না বলে তিনি جَوْفِهِ যাউফ শব্দটি ব্যবহার করেছেন । যার অর্থ পুরো শরীর, মানে এই আয়াতে বলা আছে পুরুষের সারা শরীরের ভিতরে আল্লাহ দুটি হৃৎপিণ্ড দেননি বা দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি।

এবার এত সূক্ষ্ম ও সুন্দর শব্দ নির্বাচনের কারণ কী জানেন? কারণ নারী গর্ভবতী হতে পারে। আর নারী যদি গর্ভবতী হন তবে নারীর ভিতরে দুটি হৃদয় থাকে, এক তার এবং তার বাচ্চার এবং হৃৎপিণ্ড দুটো শুধু বুকেই বিদ্যামান থাকে না। কারণ বাচ্চা থাকে পেটের দিকে, তাইনা? এজন্যই جَوْفِهِ যাউফ শব্দটি অর্থ পুরো শরীর বেশি উপযুক্ত ।

এজন্য আল্লাহ আয়াতের প্রথম দিকে যখন পুরুষের কথা বলেন তখন তিনি বলেন দুটি হৃদয় স্থাপন করেননি এবং এজন্যই আয়াতটি ত্রুটিমুক্ত। কারণ নারীসহ বা মানুষকে বললে আয়াতটি ভুল হতো।

এতে আরো একটি বিষয় প্রতীয়মান হয় যে, কুর’আন মানবরচিত কোন গ্রন্থ নয়। মানুষের রচিত হলে এই সূক্ষ্ম ভুলসমূহ রয়ে যেত তাই নয় কি?

————————————-
মূলঃ উস্তাদ নুমান আলী খান
অনুবাদেঃ ফয়সাল হাসান
লিঙ্কঃ http://www.ummosque.blogspot.com.au/2013/…/blog-post_17.html

 

(Visited 1,231 times, 1 visits today)

মতামত

comments